banner-ad
lakshmipurtimes

মহাজোটের প্রার্থী নোমানকে জিতাতে সেই ১৮ প্রার্থীর ঐক্যমত


ডিসেম্বর ৮, ২০১৮, ১১:০৯ এএম

বিশেষ প্রতিনিধি

লক্ষ্মীপুর টাইমস অ - ..... অ+


মহাজোটের প্রার্থী নোমানকে জিতাতে  সেই ১৮ প্রার্থীর ঐক্যমত

লক্ষ্মীপুর-২(রায়পুর) আসনে জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় নেতা ও বর্তমান সাংসদ মোহাম্মদ নোমানকে মহাজোটের নেত্রী শেখ হাসিনাকে জিতিয়ে আনতে কাজ করার ঐক্যবদ্ধ হয়েছে লক্ষ্মীপুরের নেতৃত্ব দেয়া আঃলীগ নেতারা। ভিআইপি আসন খ্যাত লক্ষ্মীপুর-২(রায়পুর) আসনটি চট্রগ্রাম বিভাগের সবচেয়ে আলোচিত ছিলো সাবেক প্রধানমন্ত্রী কারাবন্দী খালেদা জিয়ার নিজের আসন হিসেবে পরিচিত। এছাড়াও আঃলীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ, শ্রমিকলীগ সহ কেন্দ্রীয় নেতাদের জন্মস্থান খ্যাত এই আসনটি।  আসনটি পুনরুদ্ধার করতে আঃলীগের ১৮ প্রার্থী নমিনেশন চেয়েছিলো। তবে মহাজোটের নেতা ও আঃলীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে এই আসনে আঃলীগের কারো মনোনয়ন পত্রের চিঠি না পাওয়ায় হতাশ ছিলো আঃলীগ। আলোচিত - সমালোচিত কুয়েত আঃলীগ নেতা কাজী শহিদ ইসলাম পাপুলের সম্ভাবনা থাকলেও ছিটকে পড়েন নমিনেশন পাওয়া থেকে।
এদিকে আঃলীগের সাংসদ প্রার্থীদের ও নেতাদের ঐক্যবদ্ধতা নৌকার সমর্থকদের দুঃখ ঘুচিয়ে আঃলীগ নেতৃত্বধীন মহাজোটের প্রার্থী কে তা না দেখে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ পরিচালনার জন্য কাজ করবে বলে জানান কেন্দ্রীয় যুব ও ক্রীড়া উপ কমিটির সদস্য হাওলাদার নুরে আলম জিকু। তিনি আরো বলেন, আঃলীগ ঐক্যবদ্ধভাবে মহাজোটের প্রার্থীকে বিজয়ী করার জন্য নেত্রীর নির্দেশে কাজ করছি আমরা সবাই।

মহাজোটের প্রার্থীকে বিজয়ী করতে আঃলীগ কতটুকু প্রস্তুত এমন প্রশ্নের জবাবে কেন্দ্রীয় যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য মোহাম্মদ আলী খোকন বলেন, যেখানে নৌকা- নাঙ্গল সেখানে বিজয়ী করার নির্দেশ দেয়া হয়েছে মহাজোট থেকে।  রংপুরে আঃলীগের জন্য  নাঙ্গল যেমন প্রতীক নয় নির্দেশ মানছে ঠিক তেমনি আমরাও নৌকা নাঙ্গল মিলে বিজয়ী করতে ঐক্যবদ্ধ ইনশাআল্লাহ। এছাড়াও নোমান এমপি এলাকায় আঃলীগ সরকারের উন্নয়ন কাজ, ক্লিন ইমেজের ব্যক্তি তিনি তাই আঃলীগ মহাজোটের প্রার্থীকে জিতিয়ে আনার বিকল্প নেই।

লক্ষ্মীপুর জেলা আঃলীগের সাঃসম্পাদক এড.নুর উদ্দিন চৌধুরী নয়ন বলেন ব্যক্তি নয়, দলের স্বার্থে কাজ করুন, জননেত্রী শেখ হাসিনার সিদ্ধান্তই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত।  লক্ষ্মীপুর জেলার ৪টি আসনে জননেত্রী শেখ হাসিনার মনোনীত মহাজোট প্রার্থীকে নিজ নিজ কেন্দ্রে বিজয়ী করতে ওয়ার্ড, ইউনিয়ন, উপজেলা ও জেলা  আওয়ামীলীগ সহ সকল সহযোগী সংগঠনকে ঐক্যবদ্ধ ভাবে কাজ করতে হবে। দলের বিরুদ্ধে গেলেই কঠোর সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আপনার মন্তব্য লিখুন:



অন্যান্য বিভাগ