• ঢাকা
  • শুক্রবার, ২৯ মে, ২০২০, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭
Safe Diagnostic Center

রামগঞ্জ শুক্রবার থেকে আবারও লকডাউন


লক্ষ্মীপুর টাইমস | নিজস্ব প্রতিবেদক, প্রকাশিত: মে ১৪, ২০২০, ১২:২৫ পিএম রামগঞ্জ শুক্রবার থেকে আবারও লকডাউন

কেনাকাটায় ক্রেতা-বিক্রেতারা সামাজিক দূরত্ব ও স্বাস্থ্যবিধি না মানায় লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জ ফের লকডাউনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। শুক্রবার (১৫ মে) সকাল থেকে রামগঞ্জে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের দোকান ছাড়া শফিংমলসহ অন্যান্য ব্যবসা-প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখার নির্দেশনা দিয়েছে উপজেলা প্রশাসন।

 

বুধবার (১৩ মে) রাত ৮ টার দিকে রামগঞ্জ উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মুনতাসির জাহান এক গণবিজ্ঞপ্তিতে বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

পরবর্তী নির্দেশনা দেওয়া পর্যন্ত এই ঘোষণা জারি থাকবে। এটি অমান্যকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে গণবিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়েছে।

 

গণবিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, বাজারে ক্রেতা-বিক্রেতা কেউই সামাজিক দুরত্ব আর স্বাস্থ্যবিধি মানছেন না। রামগঞ্জকে করোনা ভাইরাস সংক্রমণে ঝুঁকিপূর্ণ এলাকা হিসেবে বিবেচনা করা হচ্ছে। এজন্য জনস্বার্থ ও জনস্বাস্থ্য উভয় বিবেচনায় পরবর্তী নির্দেশনা না দেওয়া পর্যন্ত রামগঞ্জে (প্রত্যেক ইউনিয়নসহ) আগের মতো সকল প্রকার দোকানপাট, শফিংমল ও অন্যান্য ব্যবসা-প্রতিষ্ঠান বন্ধের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

 

এ সিদ্ধান্ত অনুযায়ী শুক্রবার (১৫ মে) থেকে সকল ব্যবসা-প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকবে। তবে দুপুর ১ টা পর্যন্ত সীমিত পরিসরে নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যাদি ও কাঁচাবাজার খোলা থাকবে। ওষুধের দোকান সার্বক্ষণিক খোলা রাখা যাবে। নির্দেশনা অমান্যকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

 

সূত্র জানায়, জেলার প্রথম করোনারোগী রামগঞ্জের লামচর ইউনিয়নে শনাক্ত হয়েছে। এই উপজেলায় এক মৃত ব্যক্তির করোনা পজেটিভ এসেছে। এখনো পর্যন্ত এই উপজেলায় ১৯ জন রোগীর করোনা শণাক্ত হয়েছে। এরমধ্যে ১০ জন সুস্থ হয়েছেন।

 

প্রসঙ্গত, ক্রেতা বিক্রেতারা স্বাস্থ্য বিধি না মানায় সোমবার (১১ মে) বিকেলে জেলার রায়পুরকে লকডাউন ঘোষণা করেছে উপজেলা প্রশাসন। মঙ্গলবার (১২ মে) সকাল থেকে এই নির্দেশনা কার্যকর হয়। পরবর্তী নির্দেশনা অনুযায়ী এই নির্দেশনা অব্যাহত থাকবে।

Side banner