• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ১৬ জুলাই, ২০২০, ১ শ্রাবণ ১৪২৭
Safe Diagnostic Center

লক্ষ্মীপুর স্টেডিয়ামে খেলা ও খেলোয়াড় নেই; আছে দর্শক!


লক্ষ্মীপুর টাইমস | রাজু হাসান; প্রকাশিত: মে ২৮, ২০২০, ০৬:১৬ পিএম লক্ষ্মীপুর স্টেডিয়ামে খেলা ও খেলোয়াড় নেই; আছে দর্শক!

শূন্য খেলার মাঠ। সবুজ ক্যানভাস হয়ে গেল যেনো ধূসর। নিয়মিত যে গ্যালারি ফেটে পড়ে উচ্ছ্বাসে, সেটাই আজ নিথর। স্টেডিয়াম থেকে হঠাৎ উধাও প্রাণের স্পন্দন।
মাঠে আজ আর নেই খেলোয়াড়দের দৌড়াদৌড়ি। 

পেশাদার ক্রীড়াযুগে এ দৃশ্য বিরল। খেলোয়াড় বা দর্শকের হতাশা থাকাটাই স্বাভাবিক। কিন্তু আজ খেলার চেয়ে বা খেলা উপভোগের চেয়ে ভয়াবহ করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে উদ্যোগী সবাই। আর তাইতো লক্ষ্মীপুর জেলা স্টেডিয়ামে আজ প্রায় তিন মাস দেখা মিলছে না কোন খেলা বা খেলোয়াড়ের। 

গ্যালারিগুলো শূন্য রয়েছে দর্শকহীন। দর্শক গ্যালারিতে নেই, খেলা নেই বলে। কতদিন থাকবে এমন ভয়াবহতা, কে জানে? 

২০২০ এর জানুয়ারির দিকে লক্ষ্মীপুর জেলা ক্রীড়া সংস্থার অধীনস্থ ক্রিকেট কোচিং একাডেমিতে ভবিষ্যতের সাকিব-তামিম হওয়ার স্বপ্ন নিয়ে ভর্তি হয়েছিল রায়পুরের ৮নং ইউপি'র হৃদয় হোসেন (১৫)। লকডাউন এর কারনে আজ প্রায় তিন মাস তার একাডেমি বন্ধ রয়েছে। সে জানেনা কবে এ লকডাউন সিথিল হতে পারে। ভবিষ্যৎ ক্রিকেট তারকা হওয়ার যে স্বপ্নে সে ভর্তি হয়েছিল ক্রিকেট কোচিং একাডেমিতে সে স্বপ্নে আস্তে আস্তে মরীচিকার ধরছে।


আজ (২৮মে) বিকেলে লক্ষ্মীপুর জেলায় স্টেডিয়ামে গিয়ে দেখা যায় স্থানীয় শিশু ও যুবক-যুবতীরা ঘুরতে স্টেডিয়াম এলাকায় এসেছে। তাদের অনেককেই দেখা যায় গ্যালারিতে ঘন্টার পর ঘন্টা পাশাপাশি বসে গল্প গুজব করতে। যদিও অনেকেরই মুখে মাস্ক, হাতে গ্লাভস ছিল না। 


জানতে চাইলে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক যুবক জানায়, ঘরে থাকতে থাকতে সে একঘেয়েমি লাগছে। তাই বিকেল বেলা স্টেডিয়াম এলাকায় একটু হাঁটতে আসা এবং স্টেডিয়ামের ভিতর প্রবেশ করা। মাস্কের কথা বলতেই তিনি লজ্জায় মুখ ঢাকলেন। 


জানতে চাইলে জেলা ক্রীড়া সংস্থার সদস্য ও ক্রিকেট উপ কমিটির যু্গ্ম সাধারন সম্পাদক সৈয়দ বাপ্পী জানান, জেলা ক্রীড়া সংস্থার লোকজন আগত দর্শনার্থীদেরকে স্টেডিয়াম এলাকায় প্রবেশে নিষেধ করলেও দর্শনার্থীরা তা আমলে নিচ্ছে না। তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন, লকডাউন সিথিল হলে এবং করোনার প্রভাব কমে গেলে জেলা ক্রীড়া সংস্থার সভাপতি জেলা প্রশাসক অঞ্জন চন্দ্র পাল ও সাধারণ সম্পাদকের এ্যাড. নূর উদ্দিন চৌধুরী নয়নের সাথে আলোচনা সাপেক্ষে আবারো সকল প্রকার খেলা লক্ষ্মীপুর স্টেডিয়ামের সবুজ চত্বরে গড়াবে।

Side banner