• ঢাকা
  • বুধবার, ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ১৫ আশ্বিন ১৪২৭
Safe Diagnostic Center

ছিলেন যুবদল নেতা এখন হলেন আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক


লক্ষ্মীপুর টাইমস | নিজস্ব প্রতিবেদক: প্রকাশিত: আগস্ট ৮, ২০২০, ১১:৩৯ পিএম ছিলেন যুবদল নেতা এখন হলেন আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক

লক্ষ্মীপুরের কমলনগর উপজেলার চরকাদিরা ইউনিয়ন যুবদলের যুগ্ন আহবায়ক ও১ নংওয়ার্ড যুবদলের সভাপতি জয়নাল মাঝি এখন আওয়ামীলীগের ওয়ার্ড সেক্রেটারি। এমন অভিযোগ করে আওয়ামীলীগ -যুবলীগ -ছাত্রলীগ ও শ্রমিকলীগ সহ সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীদের মধ্যে চরম অসন্তোষ বিরাজ করছে।

 

অভিযোগ রয়েছে, জয়নাল মাঝি চরকাদিরা ইউনিয়নের ১নংওয়ার্ড যুবদলের সভাপতি ও কট্টর আওয়ামীলীগ বিদ্ব্যেষী একজন লোক। কিন্তু হঠাৎ করে ২০১৯ সালের দিকে কি ভাবে তিনি আওয়ামীলীগের সেক্রেটারী বনে গেল এ প্রশ্ন এলাকার সর্বসাধারনের। এ নিয়ে আওয়ামীলীগের নেতাকর্মী ও সমর্থকদের মধ্যে চরম অসন্তোষ বিরাজ করছে। ক্ষমতাশীন দলের নব্য ওয়ার্ড এই সেক্রেটারি জয়নাল মাঝি ঐ ওয়ার্ডের সরকারী ওয়াপদা বেড়ীর উপর আলিশান অফিস নিয়ে এক রাজনৈতিক দোকান খুলে বসে আছেন। দোকান ভাড়া ও আনুসাংগিক খরছ কে দেয়? রাস্তার পাশে সরকারী জায়গার উপর অফিস নিয়ে বসার লক্ষ্য উদ্দেশ্যটা কি? এমন প্রশ্ন এলাকাবাসীর।
 

আওয়ামীলীগে নতুন যোগদানকৃত জয়নাল মাঝি কে নিয়ে চরকাদিরা ইউনিয়ন ব্যাপী চলছে রাজনৈতিক অংগনে নানা বিশ্লেষণ। নতুন এ আওয়ামীলীগ নেতার অফিস নেওয়া কে নিয়েও বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের কর্মী সমর্থক ও সাধারন মানুষের মাঝে কানাঘুষা চলছে ব্যাপক।
 

চরকাদিরা ইউনিয়ন বিএনপির দায়িত্বশীল এক নেতা বলেন, জয়নাল মাঝি যুবদলের ওয়ার্ড সভাপতি ছিলেন। তিনি দীর্ঘদিন ধরে বিএনপির রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত। বর্তমানে ইউনিয়ন যুবদলের যুগ্ন আহবায়ক ও ১ নং ওয়ার্ড সভাপতি। তবে ঝামেলা এড়াতে ওই দায়িত্বশীল নেতা তার নাম প্রকাশে অনিহা জানিয়েছেন।

দলীয় সূত্র জানায়, চরকাদিরা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি নুরুল ইসলাম ও সাধারন সম্পাদক ডালিম কুমার শ্রীপদ মুলত ওমর ফারুক কে সভাপতি ও জয়নাল মাঝিকে সাধারন সম্পাদক করে ১ নং ওয়ার্ডের এই কমিটি অনুমোদন দেন। কমিটির দেওয়ার সময় উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নুরুল আমিন মাষ্টার ও সাধারণ সম্পাদক এডঃ একে এম নুরুল আমিন রাজু ও উপস্থিত ছিলেন।
 

নাম প্রকাশ না করার শর্তে সিনিয়র দুইজন আওয়ামী লীগ নেতা জানায়, এক সময় জয়নাল মাঝিদের হাতে আওয়ামী লীগের অনেক নেতাকর্মী অমানবিক নির্যাতনের শিকার হয়েছে। তাকে দেখলেই আমাদের নেতাকর্মীরা দ্রুত পালিয়ে যেত। অবস্থাদৃষ্টে বলা যায়,এখন দলের আদর্শের প্রয়োজন নেই, টাকা হলেই পদবী পাওয়া যায়।
 

জানতে চাইলে মো.জয়নাল মাঝি বলেন, আমি এক সময় বিএনপি করতাম। এখন করিনা। রাজনীতির হিংসার কারনে কিছু লোক আমার বিরুদ্ধে অপ-প্রচার চালাচ্ছে। চরকাদিরা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ডালিম কুমার শ্রীপদ জানান বিশাল অংকের টাকার বিনিময় জয়নাল মাঝিকে আওয়ামীলীগের পদবী দেওয়া হয়েছে। তবে তার স্বাক্ষর জাল করেছেন বলেও তিনি জানান।
 

এ ব্যাপারে কমলনগর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক এডঃ নুরুল আমিন রাজু জানান, বিষয়টি তার জানা নেই। উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি নুরুল আমিন মাষ্টার বলেন কমিটি ঘোষণার পর জয়নাল মাঝি সম্পর্কে বিভিন্ন বিষয়ে আমি জানতে পেরেছি। দলে লোক বাড়ানোর জন্য হয়তো নেওয়া হয়েছে। এই কমিটি নিয়ে ঘাটাঘাটি

Side banner